LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

দুই বোনই ফ্যাশন ব্লগিংয়ে হাত পাকানো। একজন আরেকজনের অনুপ্রেরণা। তাদের ছোটবেলাটাও কেটেছে একসাথেই। এক বোন আরেক বোনের শক্তিও বটে। তারা হচ্ছেন- আসমা-উল-হোসনা তিশা ও আফসারা তাসনিম দিনা।

আফসারা তাসনিম একজন ফ্যাশন ব্লগার। সম্প্রতি ইভেন্ট প্ল্যানিংয়ের একটি ব্যবসা শুরু করেছেন। তার বড় বোন তিশাও দুই বছর ধরে ফ্যাশন ব্লগিং করেন। জনপ্রিয়তাও পেয়েছেন বেশ। পাশাপাশি তিশা একটি কোম্পানিতে চাকরি করেন। আফসারা ও তিশার বয়সের ব্যবধান ৬ বছর। ছোটবেলায় দুই বোন একসাথেই খেলাধুলা করত। আর আফসারার ফ্যাশনের প্রতি আগ্রহটাও বড় বোন তিশা থেকেই জন্মায়। আফসারা বলেন, “আমার বোনের কাছ থেকেই ফ্যাশন বøগিংয়ের প্রতি অনুপ্রেরণা পাই। আমার আপু আর আম্মুকে দেখতাম ফ্যাশনের ব্যাপারে খুব সচেতন ছিলেন এবং পরিকল্পনা অনুযায়ী করতেন। ছোটবেলা থেকে আপুর সাথে বেস্ট ফ্রেন্ডের মতো করেই বড় হয়েছি।”

তিশা নিজে একজন ফ্যাশন ডিজাইনার হতে চেয়েছিলেন। ফলে নিজের ড্রেস নিজেই ডিজাইন করতেন এবং ছবি তুলে আপলোড দিতেন। ২০১৮ সালের জানুয়ারি থেকে নিয়মিত বিভিন্ন ড্রেস পরে ছবি তুলে ইন্সট্রাগ্রামে আপলোড দিতেন তিশা। একসময় তিশা দেখলেন, তার ১০ হাজার ফলোয়ার হয়েছে। তারপর তিনি প্রথম কোনো কোম্পানি থেকে স্পন্সর পেলেন। আফসারাও ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারি-মার্চ থেকেই ফ্যাশন ব্লগিং শুরু করেন। আফসারার ইন্সট্রাগ্রাম একাউন্ট প্রাইভেট থাকা অবস্থায়ই তার ফলোয়ার ছিল ১৩ হাজারের মতো। তিশা আফসারাকে বলেন, “তুমি অনেক সৃজনশীল, এই সেক্টরে আমার থেকে বেশি তোমার কাজ করা উচিত। তোমার একাউন্টটা পাবলিক করো। মানুষ তোমাকে পছন্দ করে এটা বোঝা যায়।”

দুই বোন মূলত কনটেন্ট ব্লগিং করেন। ধরুন, একটা সাদা কুর্তি। এটাকে কতভাবে স্টাইল করা যায়- এ ধরনের ছবি আপলোড করেন। ফলে একই ড্রেস মানুষ ৫-৬ ভাবে স্টাইল করে পড়তে পারবে। আফসারার একটি ইউটিউব চ্যানেলও রয়েছে। আফসারার ইন্সট্রগ্রাম আইডির নাম afsaraficent এবং তিশার ইন্সট্রগ্রাম আইডির নাম kingtisha।

Afsara and Tisha

তাদের এই কাজে বাবা-মা দুজনের কাছ থেকেই অনুপ্রেরণা পেয়েছেন তারা। আজকের এ অবস্থানে আসতে কী কী চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হতে হয়েছে জানতে চাইলে তারা বলেন, কোনো কোনো সময় নেতিবাচক কথা শুনতে হয়েছে। যখন কোনো কিছু কিনে সেটার ছবি পোস্ট করা হতো, তখন দু-একজন বলত আপু এত শো-অফ করছেন কেন? আমাদের এটা নেই, আমাদেরকে দিয়ে দেন। এরকম নেতিবাচক কমেন্টস মাঝে মধ্যে দেখতে হয়। এছাড়া ব্যক্তিগত জীবন কিছুটা ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

আফসারা তাসনিম বর্তমানে পড়ছেন ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ে ইংরেজি বিভাগে আর তিশা আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ থেকে এমবিএ সম্পন্ন করে চাকরি করছেন।

নতুনদের জন্য পরামর্শ জানতে চাইলে আফসারা বলেন, “প্রথম কথা হলো আত্মবিশ্বাস ও ধৈর্য হারানো যাবে না। সততার সাথে লেগে থাকলে সফলতা আসবেই- সেটা আজ হোক কিংবা কাল।” অন্যদিকে তিশা বলেন, “কাজটিকে নিজের প্যাশন হিসাবে দেখতে হবে। এটা থেকে অনেক আয় হবে- এমন চিন্তা থেকে শুরু না করাই ভালো। যেটা করতে ভালো লাগবে সেটা প্যাশন থেকে করলে সফলতা আসবেই।”

লেখা: জুবায়ের আহম্মেদ

- A word from our sposor -

spot_img

দুই বোনের বাজিমাত : তিশা ও আফসারা